টোফেল কি? ( WHAT IS TOFEL?)

গ্রাফিক ডিজাইন কি

টোফেল (TOEFL)

 

প্রাথমিক কিছু কথা:

TOEFL এর পূর্ণাঙ্গ অর্থ হচ্ছে Test of English as a Foreign Language, অর্থাৎ ইংরেজি ভাষাভাষী নয় এমন শিক্ষার্থীদের ইংরেজিতে দক্ষতা যাচাই করার পরীক্ষা। স্নাতক কিংবা স্নাতকোত্তর (মাস্টার্স বা পিএইচডি) পর্যায়ে বাইরের দেশে উচ্চশিক্ষার ক্ষেত্রে ইংরেজি ভাষার দক্ষতার জন্য এই পরীক্ষার প্রয়োজন পড়ে। তবে আমেরিকার নিজস্ব এই পরীক্ষা পদ্ধতি আমেরিকাতেই অগ্রাধিকার পায় বেশি। সুতরাং টোফেল হচ্ছে ইংরেজি যাদের মাতৃভাষা নয় তাদের ইংরেজি ভাষাভাষী বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি করার জন্য ইংরেজি ভাষার মানদন্ড যাচাই করার পরীক্ষা। এটি সাধারণত ইংলিশ স্পিকিং প্রফেশনাল ও প্রফেশনাল ইনস্টিটিউট দ্বারা গৃহীত হয়। TOEFL বিশ্বের দুটি প্রধান ইংরেজি ভাষা পরীক্ষার মধ্যে একটি ও অন্যটি হচ্ছে IELTS। টোফেল মূলত ইংলিশ টেস্টিং সার্ভিস (ETS) এর একটি ট্রেডমার্ক, যা বেসরকারি প্রতিষ্ঠান পরিচালনা করে।
IELTS পরীক্ষার মতো TOEFL পরীক্ষার স্কোরের মেয়াদ দুই বছরের জন্য থাকে।

 

টোফেল (TOEFL) পরীক্ষার কাঠামো ও পদ্ধতি:

টোফেল পরীক্ষায় চারটি সেকশন থাকে: রিডিং, লিসেনিং, স্পিকিং, রাইটিং। সেকশনগুলোর ক্রম অর্থাৎ কোনটির পরে কোন সেকশন তা এরকমই থাকে। প্রথম দুই সেকশনের পর ১০ মিনিটের ব্রেক, তারপর বাকি দুইটি সেকশন। অর্থাৎ এই চারটি সেকশনে টোফেল পরীক্ষা চারটি ভাগে নেয়া হয়। চার সেকশনের প্রতিটিতে ৩০ নাম্বার করে মোট ১২০ নাম্বারের পরীক্ষা নেওয়া হবে। টোফেল পরীক্ষায় নাম্বার এক এক করে বাড়ে। মানে হলো, ৯৯.৫ পাওয়া যায় না, হয় ৯৯ নয়তো ১০০। বেশিরভাগ বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্ষেত্রে সর্বনিম্ন শর্ত থাকে ৮০ এর কাছাকাছি।

 

১. রিডিং:

৫৪ থেকে ৭২ মিনিটের এই সেকশনে ৩ থেকে ৪ টি রিডিং পেসেজ বা অনুচ্ছেদ থাকে এবং প্রতিটি থেকে ১৪টি করে প্রশ্ন থাকে (বেশিরভাগ জেনারেল MCQ প্রশ্ন)। সাধারণত ৩ টি অনুচ্ছেদ থাকলে ৫৪ মিনিট আর ৪ টি অনুচ্ছেদ থাকলে ৭২ মিনিট এই প্যাটার্নে প্রশ্ন প্রণয়ন করা হয়ে থাকে। তবে, বেশিরভাগ সময়ই সাধারণত ৩ টি অনুচ্ছেদেই পরীক্ষা নেয়া হয়ে থাকে। এখানে অধিকাংশ প্রশ্নই general MCQ, insert a sentence, complete the summary, complete the table, inference, vocabulary, sentence simplification এই ধরনের হয়। 

 

২. লিসেনিং:

বিভিন্ন বিষয়ের ওপর একজনের লেকচার (বক্তব্য) অথবা দুইজনের কথোপকথনের অডিও শুনতে হবে, শুনতে শুনতে রাফ কাগজে নোট নিতে হবে। বক্তব্য বা কথোপকথন শেষ হওয়ার পরে প্রশ্ন আসবে। সাধারণত ৬টি টাস্ক থাকে (৬০ মিনিট এর জন্য), কোনো কোনো ক্ষেত্রে ৯টি (৯০ মিনিট এর জন্য) আসতে পারে। তবে সাধারণত যদি রিডিং সেকশনে ৩ টির পরিবর্তে ৪ টি অনুচ্ছেদ চলে আসে, তাহলে লিসেনিং সেকশনে ৯টা টাস্কের সম্ভাবনা নেই বললেই চলে।

 

৩. স্পিকিং:

টোফেল পরীক্ষার সবচেয়ে সংক্ষিপ্ত ২০ মিনিটের সেকশন এটি। স্পিকিং সেকশনে দুই ধরনের টাস্ক থাকবে:

a. Independent Task: এইগুলোকে Independent Task বলা হয়, কারণ এখানে স্পিকিং ছাড়া অন্য কোন ব্যাপার নেই। এ ধরনের টাস্ক থাকবে দুইটি। এখানে আপনার পরিচিত টপিক নিয়ে ৪৫ সেকেন্ড বলতে হবে, প্রিপারেশনের জন্য সময় পাবেন ১৫ সেকেন্ড। সাধারণত সহজ বিষয়বস্তুর ওপর এই টাস্কে কথা বলতে হয়।

b. Integrated Task: এই ধরনের টাস্কে পরীক্ষার্থীকে স্পিকিং ছাড়াও আরও বেশ কিছু ক্ষেত্রে দক্ষতা দেখাতে হবে। যেমন: পরীক্ষার্থীকে একটি অনুচ্ছেদ পড়তে হবে অথবা কোনো একটি কথোপকথন বা লেকচার শুনতে হবে। এরপর সেগুলোর ওপর ভিত্তি করে যে প্রশ্ন করা হবে, সেটার ওপর বলতে হবে।

 

৪. রাইটিং:

এই সেকশনে ইংরেজি লেখার সক্ষমতা যাচাই করা হয়। ২টি ধাপে রচনা লিখতে হবে ৫০ মিনিট সময়ের মধ্যে।

Integrated Task: যে অডিওগুলো শোনানো হবে সেই অডিও থেকেই বিষয়বস্তু ধরে আনুমানিক ১৫০ শব্দের রচনা লিখতে হবে।Independent Task: ব্যক্তিগত কোনো অভিজ্ঞতার আলোকে কম বেশি ৩০০ ওয়ার্ডের মধ্যে রচনা লিখতে হবে।

আবেদন প্রক্রিয়া:

লোকাল সেন্টার বা অনলাইনে, দুইভাবেই রেজিস্ট্রেশনের কাজটি করা যায়। টেস্ট দেয়ার ৩-৪ মাস আগে রেজিস্ট্রেশন করে ফেলা উচিত। টোফেল রেজিস্ট্রেশনের জন্য www.toefl.org এই সাইটে গিয়ে সাইন আপ করে একাউন্ট খুলতে হবে। ক্রেডিট কার্ডের মাধ্যমে ১৮০ ডলার দিতে হবে। কোনো পরিক্ষার্থী কাঙ্ক্ষিত স্কোর তুলতে না পারলে একাধিক বার এই পরীক্ষা দিতে পারবেন এবং সেটি প্রতিমাসে দিতে পারবেন।

ফেইথ একাডেমি সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে ক্লিক করুন